খেলার খবর

বানর বলায় থাপ্পড় মেজাজ হারিয়ে মারলেন ঘুষি

বর্ণবাদ যেন খেলার মাঠ কেও ছাড় দিচ্ছেনা, যার প্রমাণ ফুটবল বিশ্ব আবারও দেখলো। এবার বর্ণবাদের শিকার হলেন পিএসজির তারকা ব্রাজিলিয়ান সুপার স্টার নেইমার জুনিয়র। পিএসজি বনাম মার্শেইয়ের ম্যাচে ফের বর্ণবাদের ঘটনা ঘটে।

গত রবিবার রাতে মুখোমুখি হয় ফরাসি লীগের দুই দল পিএসজি বনাম মার্শেইয়ে। মার্শেইয়ের আলভারো গঞ্জালেজের মাথার একদম পেছন দিকে থাপ্পড় মেরে দ্বিতীয় হলুদ দেখে মাঠ ছাড়েন নেইমার জুনিয়র। খেলা শেষে ব্রাজিলিয়ান সুপার স্টার নেইমার দাবি করেছেন, মাঠে আলভারো গঞ্জালেজের কাছ থেকে তিনি বর্ণবাদের শিকার হয়েছেন।

নেইমার তার টুইটারে নিজের ভেরিফাইড একাউন্ট থেকে একটি টুইট করেন, আর সেখানে তিনি গঞ্জালেজের শাস্তি দাবি করেছেন। ম্যাচ শেষে নেইমার গঞ্জালেজকে উদ্দেশ্য করে টুইটারে লিখেছেন, আমার একমাত্র আফসোস ওর পেছনে ঘুষি না মেরে সামনে মারতে না পারা।

পিএসজি বনাম মার্শেইয়ের ম্যাচে নেইমার সহকারে দুই দলের মোট ৫ জন খেলোয়াড়কে রেফারি লাল কার্ড দেখিয়েছেন। সব মিলিয়ে পুরো ৯০ মিনিটের খেলায় রেফারিকে ১৭ বার ই হলুদ কার্ড দেখাতে হয়েছে। এরকম আক্রমনাত্মক ম্যাচে ঘরের মাঠে মার্শেইয়ের কাছে ১-০ গোলে হেরেছে পিএসজি। এই ম্যাচ নিয়ে লীগে টানা দুই ম্যাচ পরাজিত হলো বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

খেলা শেষে নেইমার দুই ঘন্টার ব্যবধানে দুইটি টুইট করেছেন। প্রথম টুইটে লিখেছেন, আমার একটাই আফসোস ওর মুখে মারা উচিত ছিলো ঘুষিটা। প্রথম টুইট করেছিলেন ম্যাচ শেষ হবার পর পর ই। প্রথম টুইট করার বেশ কিছুক্ষণ পর দ্বিতীয় টুইট করেছেন, দ্বিতীয় টুইটে তিনি গঞ্জালেজের শাস্তি দাবি করেছেন। এবং সমালোচনা করেছেন ভিএআরের।

নেইমার লিখেছেন, ভিএআর দিয়ে আমার হিংস্রতা বিচার করা সহজ, এখন আমি চাই, যে বর্ণবাদী আমাকে মাঠে বানর বলে গালি দিলো তার ছবিটাও সবার সামনে প্রকাশ হওক। আমি রেইনবো ফ্লিক করলে শাস্তি দেওয়া হয়, আমি থাপ্পড় দিলে মাঠ থেকে বের করে দেওয়া হয় এখন ওদের কি হবে?

তিনি লিখেছেন, ‘ভিএআর দিয়ে আমার সিংস্রতা বিচার করা সহজ। এখন আমি চাই যে বর্ণবাদী আমাকে মাঠে বানর বলে গালি দিল, তার ছবিটাও সামনে আসুক। এরপর? আমি রেইনবো ফ্লিক করলে, আমাকে শাস্তি দেওয়া হয়। আমি থাপ্পড় দিলে মাঠ থেকে বের করে দেওয়া হয়। ওদের কী হবে? এখন ওদের কী হবে?’

Show More

Related Articles

Back to top button
Close
Close