খেলার খবর

স্প্যানিস লীগ শুরু হতে পারে জুনে : লা-লিগা সভাপতি

চলমান বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসে কারণে স্থবির পুরো বিশ্ব। লাখ লাখ মানুষ আক্রান্ত প্রাণঘাতি ভাইরাস থেকে। আর প্রান হারিয়েছেন দুই লাখেরও বেশি মানুষ। এই অবস্থায় ক্রীড়াঙ্গনের সব প্রতিযোগিতা আপাতত স্থগিত করা হয়েছে।বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রীড়া আসর টোকিও অলিম্পিক ২০২০ স্থগিত করা হয়েছে। আসরটি অনুষ্ঠিত হতে পারে আগামী বছরে। বাতিল হয়েছে টেনিসের ঐতিহ্যবাহী গ্র্যান্ডস্লাম আসর উইম্বলডন। আশংকায় আছে ক্রিকেটের বৈশ্বিক আসর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে। বাতিল করা হয়েছে ইউরো ২০২০ ও কোপা আমেরিকা ২০২০ আসর। দুই আসর আগামী বছর অনুষ্ঠিত হতে পারে।

এই অবস্থায় গতকাল ফ্রেঞ্চ লীগ ওয়ানের এবারের মৌসুম গতকাল বাতিল করা হয়েছে। ফরাসী প্রধানমন্ত্রী ঘোষণা দিয়েছেন, সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সব ধরণের খেলা ধুলা স্থগিত থাকবে। বাতিল করা হয়েছে ডাচ লীগ ও বেলজিয়াম লীগ।

তবে আসার বাণী শুনিয়েছে ইতালিয়ান সিরি আ।৪ মে পৃথক ও ১৮ মে থেকে দলীয় অনুশীলন করতে পারবেন রোনালদো-লুকাকুরা। আর খেলা মাঠে গড়াবে আসছে জুনে। এমন আসার কথা শুনিয়েছে ইতালিয়ান সরকার। আর জার্মান বুন্দেসলীগা তো ৯ মে থেকে মাঠে গড়ানোর কথা আছে। বাকি আছে শুধু সরকারের সবুজ সংকেত।

এবার আসার বাণী শুনালো স্প্যানিস সরকার। আসছে জুনের ৭ থেকে ১৪ তারিখের মধ্যে দর্শকবিহীন মাঠে খেলা হবে লা-লিগা। এর আগে স্প্যানিস সরকারের নিয়ম অনুযায়ী প্রথমে একা অনুশীলন, দ্বিতীয় ধাপে গ্রুপ অনুশীলন ও তৃতীয় ধাপে পুরো দমে অনুশীলন করতে পারবেন লিওনেল মেসি, সার্জিও রামোসরা। দেশটির প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজ বলেছেন, পেশাদার খেলোয়াড় ৪ মে থেকে অনুশীলনে ফিরতে পারবেন।

করোনা ভাইরাসের কারণে মার্চ হঠাৎ করে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করা হয় লা-লিগা। স্পেনে করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ ধারন করায় মনে হচ্ছিল এবারের মৌসুম ভেস্তে যাবে। তবে ধীরে ধীরে মৃত্যু ও সংক্রমণ কমে যাওয়া মৌসুম শুরুর করার পরিকল্পনা করছে লা-লীগ কর্তৃপক্ষ। সেই কথা জানিয়ে লা-লিগার সভাপতি জাভিয়ের তেবাস বলেছেন, আমি আশা করি লিগটি জুনের মাঝামাঝি শুরু করতে পারবো। কমপক্ষে আমরা প্রতিযোগিতাটি শেষ করতে পারব, যা একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

এদিকে জুনে শুরুর আভাস শুনা যাচ্ছে ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগও । এ ব্যাপারে ব্রিটিশ সরকারের সঙ্গে আলোচনা করচে লীগ কর্তৃপক্ষ। এর মধ্যে কঠোরভাবে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে আর্সেনাল সহ দুই-এক ক্লাব অনুশীলনে করছে। তবে ইএসপিএনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, খেলোয়াড়রা করোনা ভাইরাসের এই সময়ে মাঠে নামতে প্রস্তুত নয়। অনেক খেলোয়াড় খেলতে খুব অস্বস্তি বোধ করছে।

একটি সূত্র ইএসপিএনকে জানিয়েছে, ক্রমবর্ধমান করোনা ভাইরাসের এই সংকটের সময় ফুটবল খেলতে চান না, যা ২০১৯-২০ মৌসুম পুনরায় শুরু করার প্রত্যাশার জন্য একটি বড় আঘাত।

করোনা ভাইরাস মহামারী চলাকালীন খেলার বিষয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া রয়েছে। এই অবস্থায় মাঠে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা কঠিন এবং নিজেকে প্রস্তুত রাখা যাবে না অনেকে মনে করছেন।

ইতালি, স্পেন বা জার্মানির দলগুলোর জন্য অনুশীলনের সুযোগ তৈরি করা হয়েছে। সেখানে প্রিমিয়ার লিগ খেলোয়াড়দের অনুশীলনে ফিরে আসার জন্য কোনও প্রকার প্রোটোকল ঘোষণা করেনি।

এদিকে যুক্তরাজ্যের সংস্কৃতি মন্ত্রী অলিভার ডাউডেন বলেছেন, যত তাড়াতাড়ি সম্ভব প্রিমিয়ার লীগ পুনরায় চালু করার বিষয়ে ক্লাবগুলির সাথে যোগাযোগ করেছেন। তিনি আরও বলেন উয়েফা লিগগুলিকে মে মাসের ২৫ তারিখের মধ্যে পুনরায় শুরু করার পরিকল্পনার রূপরেখা জানাতে বলেছে।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close