আন্তর্জাতিক

যুক্তরাষ্ট্রের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নয় বলে সিনেটকে সতর্ক করলেন ফৌসি

অদৃশ্য এক ভাইরাস কোভিড নাইন্টিনের কাছে বিপর্যস্ত সারাবিশ্ব। চার মাস পেরিয়ে গেছে ভাইরাসটির, তবে আবিষ্কৃত হয়নি এখনো ভ্যাকসিন। আর তাই মৃত্যুর মিছিল কিছুতেই থামছে না। তবে ২৪ ঘন্টায় অনেকেটা কমেছে মৃত্যুর সংখ্যা। সারাবিশ্বে গত ২৪ ঘন্টায় মারা গেছেন ৫ হাজার ৩শ মানুষ। এই সময়ে আক্রান্ত হয়েছেন ৮৫ হাজারের মতো।

মহামারী করোনা ভাইরাসে সবচেয়ে কোণঠাসা হওয়া যুক্তরাষ্ট্রে মৃতের সংখ্যা আরো বেশি বলেছেন হোয়াইট হাউসের টাস্ক ফোর্সের সদস্য অ্যান্টনি ফৌসি। এসময় তিনি বলেন, ডোনাল্ড ট্রাম্পের সাথে তার দ্বন্দ্ব নেই। মার্কিন সিনেট কমিটির সাথে কথা বলার এসব কথা বলেন তিনি।

সিএনএনের খবরে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইনিস্টিউট অফ অ্যালার্জি ও সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ অ্যান্টনি ফৌসি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে সরকারি হিসেবে ৮০ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন। তবে এই সংখ্যাটি প্রায় অবশ্যই বেশি। সম্ভবত বেশিরভাগ মৃত্যুর সংখ্যা রেকর্ড করা হয়নি। কোনোভাবেই দেশটিতে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নয় বলে অ্যান্টনি ফৌসি বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবটি সঠিক পথে চলছে বলে মনে হচ্ছে, তবে জাতিটি এর নিয়ন্ত্রণাধীন নয়।যদি আপনি ভাবেন যে এটি আমাদের সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে আছে, তবে এটা নয়। আর খুব শীগ্রই পুনরায় জনজীবনে ফিরলে পরিস্থিতি ভয়াবহ হবে বলে হুশিয়ারি দেন ফৌসি।

তবে কিছু জায়গায় নতুন আক্রান্ত কিছুটা হ্রাস পাচ্ছে বলে জানিয়ে বলেন, নিউইয়র্কে ক্রমাগত হ্রাস পাচ্ছে নতুন আক্রান্ত। তবে অন্যান্য রাজ্যে পরিস্থিতি খারাপ হচ্ছে বলে জানান তিনি।

এসময় ফৌসি বলেন, আমার এবং প্রেসিডেন্টের মধ্যে অবশ্যই কোনো দ্বন্দ্বপূর্ণ সম্পর্ক নেই। আমি অনেকবার বলেছি যে, আমি পরামর্শ ও মতামত প্রমাণ ভিত্তিক বৈজ্ঞানিক তথ্য দেই। তিনি তা শুনেন এবং তিনি শ্রদ্ধা করেন। তিনি বিভিন্ন ব্যক্তির মতামত পেয়েছেন। তবে গত কয়েক মাস ধরে আমার অভিজ্ঞতা অনুসারে কোনো ভাবেই আমাদের মধ্যে কোনো দ্বন্দ্বপূর্ণ সম্পর্ক তৈরি হয়নি।

এদিকে করোনা ভাইরাসে গত ২৪ ঘন্টায় যুক্তরাষ্ট্রে মারা গেছেন ১ হাজার ৬৩০ জন। নতুন করে আক্রান্ত ২২ হাজার। এই নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৪ লাখ ৮ হাজার। প্রাণঘাতি ভাইরাসে এখন পর্যন্ত প্রাণহানি হয়েছে ৮৩ হাজার ৪২৫ জনের। এদিন নিউইয়র্কে মারা গেছেন ১৭২ জন। তবে ২০০ মৃত্যু নিয়ে সর্বোচ্চ মৃত্যু হয় নিউজার্সিতে।

নভেল করোনা ভাইরাসে গত ২৪ ঘন্টায় ইউরোপে সবচেয়ে মৃত্যু দেখা ব্রিটেনে নতুন করে মারা গেছেন ৬২৭ জন। যা গত দুই দিনের তুলনায় অনেক বেশি। মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩২ হাজার ৬৯২ জনে। আর আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ২৬ হাজার। এদিকে দ্য গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ব্রিটেনের অফিস ফর ন্যাশনাল স্টাটিস্টিক্সের (ওএনএস) তথ্য অনুযায়ী, দেশটিতে আসল মৃত্যুর সংখ্যা ৪০ হাজার ছাড়িয়েছে। আর বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, ব্রিটেনে কেয়ার হোমে মৃতের সংখ্যা ২০ হাজার।

ব্রিটিশ চ্যান্সেলর ঋষি সুনাক বলেছেন, যুক্তরাজ্য কোভিড -নাইন্টিন প্রাদুর্ভাবের কারণে কর্মীদের ছুটিতে থাকা মাসিক পেমেন্ট অব্যাহত রাখার পরিকল্পনা করেছে।

ইউরোপের দেশে দেশে কমছে মৃত্যু ও সংক্রমণ। শিথিল হচ্ছে লকডাউন, ফিরছে জনজীবন। স্পেনে নতুন করে মারা ১৭৬ জন, মোট মৃতের সংখ্যা ৩০ হাজার ছুঁই ছুঁই। দেশটিতে বিদেশফেরতদের ১৪ দিন কোয়ারান্টাইন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি। মহামারীতে তৃতীয় সর্বোচ্চ মৃত্যু দেখা ইতালিতে নতুন মৃত্যু ১৭২, এই নিয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩০ হাজার ৯১১,জনে। ফ্রান্সে মৃত্যু বেড়েছে, ২৪ ঘন্টায় মারা গেছেন ৩৬০ জন, এই নিয়ে দেশটিতে মৃত্যুর সংখ্যা প্রায় ৩০ হাজার। জার্মানিতে ক্রমেই কমে আসছে করোনার প্রকোপ। গত ২৪ ঘন্টায় মৃত্যু…. , মোট মৃতের সংখ্যা… ।

কানাডায় মৃতের সংখ্যা ৫ হাজার ছাড়িয়েছে। নতুন মৃত্যু ১৭৪। এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৭১ হাজারের বেশি মানুষ।

করোনা ভাইরাসে এবার আক্রান্ত হয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ। তিনি নিজেই তথ্য নিশ্চিত করে বলেছেন, তিনি করোনা পজিটিভ এবং হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। অপরদিকে টানা ১০ দিন রাশিয়ায় কোভিড নাইন্টিনে আক্রান্তের সংখ্যা ১০ হাজারের বেশি। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৩২ হাজার। ছাড়িয়ে গেছে ব্রিটেনকে, যা বিশ্বে তৃতীয় সর্বোচ্চ।

নতুন হটস্পট লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে ক্রমশ নাজুক পরিস্থিতি হচ্ছে। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। নতুন মৃত্যু…. । নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন… । মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো… । ওদিকে মৃত্যুর সংখ্যা…. । পরিস্থিতি নাজুক হচ্ছে লাতিন আমেরিকার অন্যান্য দেশ পেরু,চিলি ও ইকুয়েডরে।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের উহানে সর্বপ্রথম ধরা পড়ে সংক্রমণ ব্যাধি নভেল করোনা ভাইরাস। যার ভয়াল থাবায় এখন পর্যন্ত ওয়ার্ল্ডেমিটারের তথ্য অনুযায়ী বিশ্বজুড়ে মারা গেছেন…..। মারাত্মক এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন…. । আর সুস্থ হয়েছেন… ।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close