আন্তর্জাতিক

ভারতে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন জারি

অনলাইন ডেস্ক :

করোনা ভাইরাসের প্রকোপ দমনে আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত পুরো ভারত জুড়ে লকডাউন বাড়ানো হয়েছে। এর আগে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউন ঘোষণা করেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সব রাজ্যের মুখোমন্ত্রীদের সাথে ভিডিও কনফারেন্স এক বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেন। বিষয়টি টুইটারে এক টুইট বার্তায় নিশ্চিত করেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিয়াল। তবে পুরো দেশকে তিন জোনে ভাগে করে করা হবে লকডাউন। স্থান অনুযায়ী বদলাবে নিয়মকানুন। যে তিনটি জোনে ভাগ হবে সেটি হলো, রেড জোন, ইয়োলো জোন ও গ্রীণ জোন।

মূলত ভারতে গত কয়েকদিন পাল্লা দিয়ে বাড়ছে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। গত ২৪ ঘন্টায় ভাইরাসটিতে আক্রান্তের সংখ্যা হাজার ছাড়িয়েছে। ফলে লকডাউন বাড়ানোর দাবি উঠে পুরো ভারড জুড়ে। আর তাই সংকট মোকাবেলা সবার মতামতের ভিত্তিতে এই সিদ্ধান্ত নেন মোদি।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, ভাইরাস মোকাবেলায় পুরো দেশে একই কৌশল আমরা নিব এবং মুখ্যমন্ত্রীদের বলেন,আপনারা কোনো তথ্য দিতে লুকোচুরি করবেন না। এসময় মোদি আরো বলেন, আমরা যদি দেশে একই রকম কৌশলে যাই এবং অনুসরণ করি তাহলে,করোনা ভাইরাস তো বটে সাথে অনেক ক্ষতি এড়াতে পারবো। এই দূর্যোগে আমরা আপনাদের সবার মতামত নেওয়া হবে।
এদিকে পশ্চিম বঙ্গে আগামী ১০ ই জুন পর্যন্ত সব ধরণের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। করোনা ভাইরাসের প্রকোপ দমনে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি। এছাড়া সীমানা বন্ধ রাখার জন্য তিনি কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে অনুরোধ জানান। মমতা বলেন, অমিত শাহকে বলেছি, পশ্চিম বাংলার তিন দিকে সীমান্ত রয়েছে, এসব দিক দিয়ে লোকেরা ঢুকে পড়েছে। অতি শীঘ্রই তা বন্ধ করতে হবে না হলে পশ্চিমা বঙ্গ বিপদে পড়বে আর আমরা বিপদে পড়লে পুরো উত্তর ভারত বিপদে পড়বে।

অদৃশ্য করোনা ভাইরাসে এখন পর্যন্ত পুরো ভারতে মারা গেছেন আড়াই শ’ এর মতো। আক্রান্ত হয়েছেন সাড়ে সাত হাজার মানুষ। বিশ্বে এখন পর্যন্ত কোভিড নাইন্টিনে মারা গেছেন এক লাখ তিন হাজার এর বেশি মানুষ, এছাড়া ১৭ লাখ ছাড়িয়েছে আক্রান্তের সংখ্যা।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close