মুক্তমঞ্চ

বিমানের টিকেট যেনো সোনার হরিণ!

নুরুন্নাহার শিরীন চৌধুরী: বিমানের টিকেট নিয়ে চলছে নানা রকমের হতাশা।বিমান চালু হওয়ার খবর শুনে আমরা প্রবাশীরা যার যার গন্তব্যে যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিয়েছি।আমাদের রির্টান যাওয়ার তারিখ ছিল মে মাসে।কভিড ১৯ এর কারনে ফ্লাইট কেন্সেল হওয়ায় আমরা ৪ মাস হলো দেশেই আছি। এবার ফেরার পালা। আমাদের সবার রিটার্ন টিকেট রয়েছে,কিন্তু বিমান থেকে বলা হচ্ছ সিট নেই। আগে সিট বুক করতে চেয়েছি কিন্ত বলা হয়েছে ১৪ তারিখের পরে অফিসে যেতে। ৪ মাস ধরে আমরা আমাদের পতাকাবাহী গর্বের বাংলাদেশ বিমানের অপেক্ষায় চার্টার ফ্লাইট ধরে যাইনি।

আমরা বুঝতে পারছি এই পরিস্থিতি কিন্ত তার পরেও বিমান কর্তিপক্ষের কাছ থেকে কোন রকমের ইইনফরমেশন আমরা পাইনি।আমরা সিলেটের বিমান অফিসে টিকেট বুকিং দিতে গিয়ে গেইটের ভিতর থেকে টিকেটের ডিটেইলস নিয়ে সিরিয়েল নাম্বার একটা দেয়া হয়েছে,বলা হয়েছে ৭২ ঘনটা পরে ফোনে জানানো হবে।কিন্ত সেই সময় পেরিয়ে গেলেও অফিস থেকে কোন খবর জানানো হয়নি। বিমান অফিসে ফোন করলে উনারা কথা বলে যে বিষয়টা ব্যখা দিবেন তার সময় উনাদের নেই এবং কথা বার্তায় সৌজন্যবোধ বা আশ্বাসের কোন লক্ষন নেই, কেবল এক কথা “অপেক্ষা করতে হবে”। আমাদের মাননীয় প্রধান মন্ত্রী প্রানপনে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন জনগন এবং দেশের কল্যানে।আমাদের পতাকাবাহী গর্বের বিমান উন্নতির পথে এগিয়ে যাক এটাই আমাদের কাম্য,কিন্ত বিমানের এই ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত হয়রানি মানুষকে অনুৎসাহী করে তুলবে। আশা করি সংশ্লিষ্ট কর্তিপক্ষের হস্তক্ষেপে খুব দ্রুত এই সকল সমস্যার সমাধান হবে।

Show More
Back to top button
Close
Close