খেলার খবর

বর্ণবাদের বিরুদ্ধে মেসি-ফাতিদের ক্লাব বার্সেলোনার একহাত

যুক্তরাষ্ট্রে কৃষাঙ্গ যুবক জর্জ ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদে ফুঁসে উঠেছে ক্রীড়াঙ্গনও। ফুটবল ক্লাব বার্সেলোনা, ইংলিয় তারকা জ্যাডোন সাঞ্চো, কিলিয়ান এমবাপ্পে সহ এই নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছেন সাবেক বাস্কেটবল কিংবদন্তি মাইকেল জর্ডান।

গত ২৫ মে যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটা অঙ্গরাজ্য নিরাপদ এক কৃষাঙ্গ যুবক জর্জ ফ্লয়েডকে নির্মমভাবে হাটু চেপে মারেন এক পুলিশ সদস্য। ঘটনাটির ১০ মিনিটের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ায় দায় এড়ানোর সুযোগ নেই অপরাধীদের। বর্ণবাদী এই ঘটনায় আন্দোলনে ফুঁসে উঠেছে পুরো যুক্তরাষ্ট্র। এতটাই তীব্র আন্দোলন হচ্ছে যে খুদ মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে লুকিয়ে রাখা হয়েছে হোয়াইট হাউসের বাষ্কারে। এবার সাবেক বাস্কেটবল তারকা জর্জ ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদে নিন্দা জানিয়ে একটি বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে লিওনেল মেসির ক্লাস বার্সেলোনা। টুইটারে তারা বলেছে, বর্ণবাদ হলো এক রকমের বৈষম্য, যা লিঙ্গ, জন্ম, চামড়ার রঙ্গের ওপর ভিত্তি মানুষকে হেয় করার কাজে ব্যবহার হয়। এই মহামারী আমাদের সবাইকে আঘাত করেছে। বার্সেলোনা সবসময় এসব বর্ণবাদের বিরুদ্ধে লড়াই করে ও করবে। এই লড়াইয়ে আমরা থামবো না। আমাদের অঙ্গীকার এটা।

বর্ণবাদের বিরুদ্ধে মেসি-ফাতিদের ক্লাব বার্সেলোনার  একহাত

মর্মান্তিক এই ঘটনায় জার্মানির বুন্দেসলিগায় প্রতিটি ম্যাচেই হয়েছে প্রতিবাদ। বরুসিয়া ডটমন্ডুের ইংলিশ তারকা জ্যাডোন সাঞ্চো গোল করে জাসি খুলে উদযাপন করেন। এসময় শরীরে থাকা অন্য জার্সিতে লেখা ছিল “জাস্টিস ফর জর্জ ফ্লয়েড”। এছাড়া গ্যারি লিনেকার, মার্কাস রাশফোর্ড, মার্কাস থুরাম, লেব্রন জেমস,কিলিয়ান এমবাপ্পেরা ঘটনাটির প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

এদিকে কৃষাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েড হত্যা হওয়ায় গভীর শোক ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বাস্কেটবল কিংবদন্তি মাইকেল জর্ডান। স্কাই স্পোর্টস নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয় সর্বকালের অন্যতম সেরা এই অ্যাথলেট বলেন, আমি গভীরভাবে দুঃখিত, সত্যই বেদনাদায়ক ও সরলভাবে রাগান্বিত। আমি প্রত্যেকের ব্যথা, ক্ষোভ এবং হতাশাকে দেখতে এবং অনুভব করি। যারা আমাদের দেশে বর্ণের মানুষের প্রতি বর্ণিত বর্ণবাদ এবং সহিংসতার ডাক দিচ্ছেন তাদের সাথে আমি দাঁড়িয়ে আছি। আমরা যথেষ্ট ছিল।


Tags
Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close