আন্তর্জাতিক

দেশে কমেছে মৃত্যু ও সংক্রমণ

অনলাইন ডেস্ক ঃ


করোনা ভাইরাসে গত ২৪ ঘন্টায় বিশ্বজুড়ে প্রাণ গেছে আরও ৩ হাজার ৭৫১ জন । নতুন ভাবে আক্রান্ত হয়েছেন আরও ৭৩ হাজার । হটস্পট যুক্তরাষ্ট্রে মারা গেছেন আরো ১ হাজার ৫৭। যা গত কয়েক সপ্তাহের মধ্যে সবচেয়ে কম, এদিকে ইউরোপের দেশে দেশে কমেছে মৃত্যু ও সংক্রমণ।

অদৃশ্য করোনা ভাইরাসে নাজেহাল সারা বিশ্ব বাসী। থামছেই না মৃত্যুর মিছিল। গেল বছর ডিসেম্বরে যখন প্রথম চীনের উহানে মরণঘাতী ভাইরাসটি সংক্রমণ করে। তখন কেউ ভাবেনি মাত্র ৪ মাসের ভিতরে বিশ্বজুড়ে এতটা তান্ডব চালাবে এই ভাইরাস। এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাস নির্মূলে ভ্যাকসিন আবিষ্কার না হওয়া প্রতিদিনই পাল্লা দিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ ও মৃত্যুর সংখ্যা।

মহামারি কোভিড নাইন্টিনের হটস্পট যুক্তরাষ্ট্র ভাইরাসের কাছে রীতিমতো বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। বিশ্বের সবচেয়ে উন্নত দেশটির চিকিৎসা ব্যবস্থাকে রীতিমতো বুড়োআঙুল দেখিয়ে ক্রমশ ভয়ংকর হচ্ছে করোনা। হোয়াইট হাউসের সমীক্ষা অনুযায়ী বেকার হয়ে পড়েছেন ১৬ শতাংশ মানুষ। করোনা ভাইরাসের কারণে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনৈতিক অবস্থা মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। ৬.৬ শতাংশ হ্রাস পেতে পারে অর্থনীতির পরিমাণ, আর তাই এই অবস্থা থেকে ফিরতে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময় লাগতে পারে।

গত ২৪ ঘন্টায় দেশটিতে নতুন করে মারা গেছেন ১ হাজার ১৫৭। নতুন আক্রান্ত ২৬ হাজার। এই নিয়ে দেশটিতে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়ালো ৫৫ হাজার ৪১৩ জনে। আর মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৯ লাখ ৮৭ হাজার। এখন পর্যন্ত দেশ হিসেবে বিশ্বে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে দেশটিতে।

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্য করোনা ভাইরাসে মৃত্যুপুরি। রাজ্যটিতে এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ২২ হাজারের বেশি মানুষ । গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে প্রাণ গেছে আরও ৩৬৭ জনের।

এই অবস্থায় অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে নিউইয়র্কের মেয়র ডি ব্লেসিও বলেছেন, নিউইয়র্ক সিটির করোনা ভাইরাস থেকে অর্থনৈতিক ক্ষতি কাটাতে ৭.৪ বিলিয়ন ডলার ফেডারেল সহায়তার দরকার রয়েছে।

সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখায় হাসপাতালে রোগী ভর্তির সংখ্যা কিছুটা হ্রাস পেয়েছে বলে জানিয়েছে ব্রিটেনের ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিস।এদিকে করোনা ভাইরাসে ব্রিটেনে ৩১ মার্চের পর সবচেয়ে কম মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় মারা গেছেন ৪১৩ জন। নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন সাড়ে ৪ হাজার। এই নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়ালো দেড় লাখ। মোট মৃতের সংখ্যা ২০ হাজার ৭৩২ জন। এদিকে করোনা ভাইরাসে থেকে সুস্থ হবার পর মঙ্গলবার থেকে ডাউনিং স্ট্রেটে নিজ কার্যালয়ে কাজে ফিরবেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডমিনিক রাব বলেছেন এখনই লকডাউন শিথিল করার কোনো পরিকল্পনা নেই। তিনি বলেন, আমরা একটি সূক্ষ্ম এবং বিপজ্জনক পর্যায়ে রয়েছি এবং আমাদের পরবর্তী পদক্ষেপগুলি নিশ্চিত হওয়া দরকার তা নিশ্চিত করা দরকার। আমরা খুব সতর্কতার সাথে এগিয়ে চলেছি এবং আমরা পরবর্তী পর্বের জন্য যথাযথভাবে প্রস্তুত রয়েছি কিনা তা নিশ্চিত করার জন্য এই মুহুর্তে সামাজিক দূরত্ব ব্যবস্থাসমূহের সাথে চিকিৎসার পরামর্শ, বৈজ্ঞানিক পরামর্শের প্রতি আমরা দৃঢ় সংকল্পবদ্ধ।

করোনার ভাইরাসে ১৪ মার্চের (৫৪ দিন) পর সবচেয়ে কম মৃত্যু দেখলো ভাইরাসটিতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মৃত্যু হওয়া ইতালি। গত ২৪ ঘন্টায় মারা গেছেন ২৬০ জন। আক্রান্তের সংখ্যাও সবচেয়ে কম রেকর্ড এদিন। ইতালিতে এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে মারা গেছেন ২৬ হাজার ৬৪৪ জন। মোট আক্রান্ত ১ লাখ ৯৭ হাজার। ভাইরাস থেকে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন দেশটিতে ৬৫ হাজার মানুষ।

একমাসের মাঝে সবচেয়ে কম মৃত্যু দেখলো স্পেনও। মারা গেছেন ২৮৮ জন। এই নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাড়ালো ২৩ হাজার ১৯০ জন।মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ২৬ হাজার। দেশটিতে ক্রমেই করোনা পরিস্থিতির উন্নতি হওয়া ৬ সপ্তাহ পর শিশুদের বাইরে যাওয়ার অনুমতি দিয়েছে স্প্যানিস সরকার। ভাইরাসটির প্রকোপ আরও কমলে ধারাবাহিক ভাবে বড়দেরও বাইরে বের হওয়ার অনুমতি দিবে সরকার।

মৃত্যুর মিছিল কমেছে করোনা ভাইরাসে আরেক হটস্পট ফ্রান্সে। নতুন করে মারা গেছেন ২৪২ জন। এই নিয়ে দেশটিতে মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়ালো ২২ হাজার ৮৫৬ জনে। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৬২ হাজার। পরিস্থিতি কিছুটা উন্নতি হওয়ায় ফরাসী প্রধানমন্ত্রী এডোয়ার্ড ফিলিপ মঙ্গলবার করোনাভাইরাস লকডাউন থেকে বেরিয়ে আসার জাতীয় কৌশল তুলে ধরবেন।

জার্মানিতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৫৭ হাজার। মোট মৃতের সংখ্যা ৫ হাজার ৯৭৬ জন। নতুন করে মারা গেছেন ৯৯ জন। তুরস্কেও নতুন মৃত্যু ৯৯ জন। আর মোট মৃতের সংখ্যা ২ হাজার ৮০৫। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ১০ হাজার।

ওয়ার্ল্ডোমিটারে তথ্যমতে সারা বিশ্বে মহামারি করোনা ভাইরাসে মারা গেছেন ২ লাখ ৭ হাজার মানুষ। আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৩০ লাখ এর ঘর। এখন পর্যন্ত প্রাণঘাতি এই ভাইরাস থেকে সুস্থ হয়ে উঠছেন ৮ লাখ ৮২ হাজার মানুষ ।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close