আন্তর্জাতিক

করোনা ভ্যাকসিন উদ্ভাবনে বিশ্ব নেতারা এক দিচ্ছেন ৮ বিলিয়ন ডলার

মহামারী করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে এক হচ্ছে সারা বিশ্ব। ইউরোপীয় কমিশন ৮ বিলিয়ন ডলারের তহবিল সংগ্রহের উদোগ্য নেয়।

এসময় বিশ্ব নেতারা নভেল করোনা ভাইরাসটির বিরুদ্ধে ডায়াগনস্টিকস, চিকিৎসা এবং ভ্যাকসিন গবেষণার জন্য মোট আট বিলিয়ন ডলার সহায়তার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, জাপান, সৌদি আরব, নরওয়ে, স্পেন এবং যুক্তরাজ্যের যৌথ উদ্যোগে ভার্চুয়াল এই সম্মেলনের সময় এই অনুদান সংগ্রহ হয়। যদিও এতে অংশ নেয়নি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। চীন, রাশিয়াও অংশ নেয়নি।

ভার্চুয়াল সম্মেলনে ইউরোপীয় কমিশনের সভাপতি উরসুলা ভন ডের লেইন বলেন, আজ বিশ্ব সাধারণ অসাধারণ ঐক্য দেখিয়েছে।সরকার এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা করোনা ভাইরাসের মোকাবেলায় যোগদান করেছে। এই ধরনের প্রতিশ্রুতি সহ, আমরা সবার জন্য একটি ভ্যাকসিন তৈরি, উৎপাদন এবং পৌছে দেওয়ার পথে রয়েছি। তবে এটি কেবল শুরু। আমাদের প্রচেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে এবং আরও বেশি অবদান রাখতে প্রস্তুত থাকতে হবে। প্রতিজ্ঞা ম্যারাথন অব্যাহত থাকবে।

ইউরোপীয় কমিশনের প্রধান এসময় আরও বলেন, মাত্র কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে আমরা যৌথভাবে কোভিড নাইন্টিন এর বিরুদ্ধে ভ্যাকসিন, ডায়াগনস্টিকস এবং চিকিত্সার জন্য ৮.১ বিলিয়ন ডলার প্রতিশ্রুতি দিয়েছি।এটি অভূতপূর্ব বৈশ্বিক সহযোগিতা শুরু করতে সহায়তা করবে।

তহবিলে সবচেয়ে বেশি অর্থ দিয়েছে ইউরোপের দেশ নরওয়ে। দেশটি একা দিবে ১ বিলিয়ন ডলার। সুইজারল্যান্ড দিচ্ছে ৩৮১ মিলিয়ন ডলার। নেদারল্যান্ডস ২০৯.৫ মিলিয়ন ডলার সহায়তা দিবে। অষ্টেলিয়া দিচ্ছে ২২৬ মিলিয়ন ডলার। এছাড়া করোনা ভাইরাসে নাজেহাল ইতালি দিবে ১৫২.৭ মিলিয়ন। এশিয়ার দেশ দক্ষিণ কোরিয়া সহায়তা প্রদাণ করবে ৫০ মিলিয়ন ও কুয়েত ৪০ মিলিয়ন ডলার সহায়তা হিসেবে প্রদান করবে। এছাড়া ইউরোপের অন্যান্য সব উন্নত দেশ বড় অংকের সহায়তা দিয়েছে।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন করোনা ভাইরাস বিশ্বব্যাপী মোকাবেলার জন্য ১ বিলিয়ন ইউরো সহায়তা করবে। এই কথা জানান ইউরোপীয় কমিশনের প্রধান।

এদিকে, বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের সহ-প্রতিষ্ঠাতা মেলিন্ডা গেটস এই প্রচেষ্টায় ১০০ মিলিয়ন ডলার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। এছাড়া মার্কিন পপ গায়িকা ম্যাডোনা ১ মিলিয়ন ডলার তহবিলে দিচ্ছেন।

সংযুক্ত আরব আমিরাত, ওমান, তুরস্ক, মোনাকো এবং চীনের মতো অন্যান্য দেশও কোনও পরিমাণের কথা না বলে কোভিড নাইন্টিন এর বিরুদ্ধে প্রচেষ্টাতে অবদান রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে বলে জানা গেছে।

সম্মেলনে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন মহামারী রুখতে আহবান জানিয়ে বলেন, এই যুদ্ধে জয়ের জন্য আমাদের সকলে একটি ঐক্য তৈরি করার জন্য আমাদের একসাথে কাজ করতে হবে। এবং এটি কেবলমাত্র একটি ভ্যাকসিন তৈরি ও ভর করে অর্জন করা যেতে পারে। আমাদের জীবনকালের সবচেয়ে জরুরি অংশীদারি প্রচেষ্টা৷

এই সময় বরিস জনসন বলেন, ভাইরাসকে পরাস্ত করার জন্য ভ্যাকসিন আবিষ্কারের জন্য
দেশগুলোর মধ্যে প্রতিযোগিতা চলছে না।

এদিকে জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস যে কোনও উন্নত চিকিৎসা সবার জন্য সহজলভ্য হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। ভার্চুয়াল সম্মেলনে শুরুতে আন্তোনিও গুতেরেস বলেন, কমপক্ষে ৮ বিলিয়ন জোগাড় করার লক্ষ্য নিয়েছে করোনা ভাইরাস বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close