আন্তর্জাতিকব্রেকিং নিউজ

করোনা প্রাণী থেকে বিস্তার হয়েছে ; ডব্লিএইচও

অনলাইন ডেস্ক ঃ

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিএইচও) বলেছে, যে সমস্ত প্রমাণ থেকে জানা যায় যে গত বছরের শেষ দিকে চীনে প্রাণীজ উদ্ভিদে করোনা ভাইরাস মহামারিটি আবিষ্কার হয়েছিল এবং এটি কোনও ল্যাবে ব্যবহার করে বা কারখানা তৈরি করা হয়নি। সংস্থাটি হুশিয়ারী দিয়ে বলেছে, এখনও মহামারির চূড়ান্ত রূপ দেখেনি বিশ্ব। আর জাতিসংঘ বলেছে, বিশ্বে না খেয়ে থাকা মানুষের সংখ্যা দুই গুন হতে পারে। জাতিসংঘের অঙ্গ সংস্থা বিশ্ব খাদ্য সংস্থার (ডব্লিএফপি) হিসাব মতে ইত্যিমধ্যে ১৩ কোটি মানুষ খাদ্য সংকটে ভুগছে। আর করোনা সংকটে আরো ১৩ কোটি মানুষ খাদ্য সংকটে ভুগতে পারে। ফলে এই সংখ্যা দাঁড়াবে ২৬ কোটিতে।

তবে এতকিছুর মধ্যেও অব্যাহত করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতা। গত ২৪ ঘন্টায় যুক্তরাষ্ট্রে প্রাণ গেছে রেকর্ড ২ হাজার ৮০৪ জনের। বিশ্বজুড়ে এসময় প্রাণ হানি হয়েছে আরো ৭ হাজার মানুষের।

গত কয়েকদিন করোনা ভাইরাসে সংক্রমণ কিছুটা কমেছিল যুক্তরাষ্ট্রে ও ইউরোপের দেশগুলোতে। তবে গেল ২৪ ঘন্টায় যুক্তরাষ্টে লাফিয়ে বেড়েছে মৃতের সংখ্যা। প্রাণ গেছে নতুন করে ২ হাজার ৮০৪ জনের, তবে নতুন আক্রান্ত কমেছে গত কালের চেয়ে তিন হাজার, আজ এই সংখ্যা ২৫ হাজার। সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে নিউইয়র্কে ৭৬৪ জনের। এই নিয়ে রাজ্যটিতে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৯ হাজার ৬৯৩ জনে, আক্রান্ত প্রায় আড়াই লাখের বেশি মানুষ।

করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাবের কারণে ৪৩ শতাংশ আমেরিকান চাকরি বা মজুরি হারিয়েছেন। এদিকে অভিবাসন সাময়িক ভাবে স্থগিত করায়, মহামারী চলাকালীন আমেরিকাতে অস্থায়ীভাবে অভিবাসন স্থগিত করার ট্রাম্পের পরিকল্পনা, খামারে কাজ করা বিদেশী কর্মচারীদের ক্ষতি করবে না।

এদিকে মঙ্গলবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের সাথে কথা বলেছেন, যিনি সম্প্রতি করোনাভাইরাসের জন্য চিকিৎসা শেষে হাসপাতাল থেকে অব্যাহতি পেয়েছিলেন।

হোয়াইট হাউসের একজন মুখপাত্র জানিয়েছেন, দুই নেতা করোনভাইরাস মহামারী মোকাবিলার বিশ্বব্যাপী প্রচেষ্টার পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের মধ্যে বাণিজ্য চুক্তি সুরক্ষার প্রচেষ্টা নিয়ে আলোচনা করেছেন।

ব্রিটিশ সরকার একদিনে এক লাখ করোনা ভাইরাস পরীক্ষা করার টার্গেট গ্রহণ করেছে।

ব্রিটিশ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক বলেছেন,আমরা এই সমস্ত সংস্থার সাথে জড়িত থাকতে চাই যারা এই জাতীয় প্রচেষ্টায় আমাদের সহায়তা করতে পারে। এদিকে অক্সফোর্ড [বিশ্ববিদ্যালয়] প্রকল্পের ভ্যাকসিনটি এই বৃহস্পতিবার থেকে লোকদের মধ্যে পরীক্ষা করা হবে। বিষয়টি করেছেন তিনি। স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক এই গবেষণার জন্য ২০ মিলিয়ন ডলার তহবিল ঘোষণা করে বলেন, “সাধারণ সময়ে এই পর্যায়ে পৌঁছাতে কয়েক বছর সময় লাগে”

এদিকে ইংল্যান্ড এবং ওয়েলসে ২০ বছরের মধ্যে এক সপ্তাহে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে। আরও চাঞ্চল্যকর তথ্য বের হয়েছে ব্রিটেন করোনা ভাইরাস নিয়ে। দেশটির জাতীয় পরিসংখ্যান কার্যালয়ের (ওএনএস) প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, ইংল্যান্ড ও ওয়েলসের ১০ পর্যন্ত মৃত্যুর সংখ্যা সরকারের দৈনিক তথ্যের চেয়ে ৪১% বেশি ছিল।

তবে এতকিছুর মধ্যেও অব্যাহত করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতা। গত ২৪ ঘন্টায় যুক্তরাষ্ট্রে প্রাণ গেছে রেকর্ড ২ হাজার ৮০৪ জনের। বিশ্বজুড়ে এসময় প্রাণ হানি হয়েছে আরো ৭ হাজার মানুষের।

গত কয়েকদিন করোনা ভাইরাসে সংক্রমণ কিছুটা কমেছিল যুক্তরাষ্ট্রে ও ইউরোপের দেশগুলোতে। তবে গেল ২৪ ঘন্টায় যুক্তরাষ্টে লাফিয়ে বেড়েছে মৃতের সংখ্যা। প্রাণ। প্রাণ গেছে নতুন করে ২ হাজার ৮০৪ জনের, তবে নতুন আক্রান্ত কমেছে গত কালের চেয়ে তিন হাজার, আজ এই সংখ্যা ২৫ হাজার। সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে নিউইয়র্কে ৭৬৪ জনের। এই নিয়ে রাজ্যটিতে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৯ হাজার ৬৯৩ জনে, আক্রান্ত প্রায় আড়াই লাখের বেশি মানুষ।

যুক্তরাজ্যেও গত কয়েকদিনের তুলনায় বেড়েছে মৃতের সংখ্যা। গত ২৪ ঘন্টায় প্রান ঝড়েছে ৮২৪ জনের। এই নিয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা ছাড়িয়ে গেছে ১৭ হাজার। ইতালিতে নতুন করে মারা গেছেন ৫৩৪ জন, মোট এই সংখ্যা সাড়ে ২৪ হাজার ছাড়িয়েছে। স্পেনে নতুন করে মারা গেছেন ৪৩০ জন, মোট প্রাণহানি ২১ হাজার ২৮২ জনের। ইউরোপের আরেক দেশ ফ্রান্সে নতুন মৃত্যু ৫৩১ জনের, মোট এই সংখ্যা ২০ হাজার ৭৭৯। জার্মানিতে আরো ২২৪ জনের মৃত্যু হয়েছে, এই নিয়ে মোট মৃত্যু ৫ হাজার ছাড়িয়েছে।

ইউরোপ-আমেরিকার বাইরে সবচেয়ে বেশি মানুষ কোভিড নাইন্টিনে আক্রান্ত তুরস্কে। ভাইরাসটিতে ৯৫ মানুষ সংক্রমিত হয়েছেন, প্রাণহানি ঘটেছে আড়াই হাজার মানুষের। ইরানে নতুন করে মৃত্যু ৮৮ হলেও মোট মৃত্যু ৫ হাজার ২৯৭ জনের।

এদিকে করোনা ভাইরাসে বিভিন্ন দেশে ৩২১ জন প্রবাসী বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে ১৭৮ জনের,যুক্তরাজ্যে ৭৯ ও সৌদি আরবে ১৫ জন সহ আরো বিভিন্ন দেশে প্রাণ গেছে বাংলাদেশিদের। সারা বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে মারা গেছেন ১ লাখ ৭৭ হাজার মানুষ, আক্রান্তে সংখ্যা ২৫ লাখ ৫৭ হাজার ছাড়িয়েছে।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close