আন্তর্জাতিকব্রেকিং নিউজ

করোনায় মৃতের সংখ্যা ৬২ হাজার ছাড়ালো

আজ-কাল আন্তর্জাতিক ডেস্ক

বিশ্ব জুড়ে করোনা ভাইরাসে মৃত্যুর সংখ্যা ৬২ হাজার ছাড়িয়েছে, আক্রান্ত ১১ লাখ ৬২ হাজার ৬২৮ জন।

করোনা ভাইরাসের ভয়ানক তাবা ঘ্রাস করে নিচ্ছে পুরো পৃথিবীকে। অদৃশ্য এই ভাইরাসে প্রতিদিনই প্রাণ যাচ্ছে হাজার হাজার মানুষের। হাসপাতালে পর্যাপ্ত জায়গা না থাকায় বিভিন্ন দেশে স্টেডিয়াম ও খোলা স্থানে তৈরি করা হচ্ছে হাসপাতাল। প্রতি মিনিটেই মারা যাচ্ছেন ৪ জন। ক্রমশই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে ভাইরাসটির প্রকোপ। ভাইরাসটির চিকিৎসা দিতে রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র, ইতালি, স্পেন কিংবা যুক্তরাজ্য, ফ্রান্সের উন্নত বিশ্বের দেশগুলো।

কোভিড নাইন্টিনে নাকাল বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্র। প্রতিদিনই বাড়ছে মৃত্যুর মিছিল আর সংক্রমণের সংখ্যা। নতুন করে প্রাণ গেছে ৪৯২ জনের, আক্রান্ত হয়েছেন ১৬ হাজার ৩৩৩ জন।

মোট মারা গেলেন দেশটিতে ৭ হাজার ৮৯৬ জন, আক্রান্ত ২ লাখ ৯৩ হাজারের। যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে করুন অবস্থা নিউইয়র্কে, দিনের হিসেবে গত ২৪ ঘন্টায় রাজ্যটিতে মারা গেছেন ৬৩০ জন, মোট এই সংখ্যা সাড়ে তিন হাজার। করোনায় আক্রান্ত ১ লাখ ১৩ হাজাড, এর মাঝে নিউইয়র্ক সিটিতে ৬৩ হাজার সংক্রমিত ভাইরাসে। রাজ্যটিতে যেভাবে করোনার প্রাদূর্ভাব ক্রমেই বাড়ছে এই পরিস্থিতিতে নিউইয়র্কের গর্ভনর আশংকা করে বলছেন, ‘ আমরা পর্বতের উপরে চলে যাব ‘।

করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পদক্ষেপ নিয়ে সমালোচনা চলছে পুরো যুক্তরাষ্ট্রে।

কোভিড নাইন্টিন এর মৃত্যুর মিছিল বাড়ছে যুক্তরাজ্যেও। একদিনে রেকর্ড ৭০৮ জনের মৃত্যু হয়েছে ব্রিটেনে, আক্রান্তের সংখ্যা ৩ হাজার ৭০০। দেশটিতে সর্বমোট প্রাণ গেছে করোনায় ৪ হাজার ৩১৩ জনের, আক্রান্ত ৪১ হাজার ৯০৩। এদিকে চীন থেকে আরো ৩০০ ভেন্টিলেটর আমদানি করছে যুক্তরাজ্য জানিয়েছেন দেশটির মন্ত্রীপরিষদ মন্ত্রী মাইকেল গভ। সংকটকালীন এই সময়ে এই সাহায্যের জন্য চীনকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

এদিকে স্পেনে করোনা ভাইরাস বাড়তে থাকায় লকডাউন ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ালেন প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজন। নতুন করে মারা গেছেন দেশটিতে ৫৪৬ জনের, মোট ১১ হাজার ৭৪৪। আক্রান্ত ১ লাখ ২৪ হাজার ৬৩২ জন। এছাড়া ইরানে নতুন করে ১৫৮ জনের, মোট এই সংখ্যা ৩৪৫২ জন। নেদারল্যান্ডসে মারা গেছেন ১৬ শ’র বেশি মানুষ,বেলজিয়ামে ১২ শতাধিক, কানাডায় ২১৪ জনের।

সূত্র : বিবিসি,নিউইয়র্ক টাইমস, এএফপি

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close