খেলার খবর

করোনাকে ভয় পায় খেলোয়াড়রা :আগুয়েরো

করোনা ভাইরাসে মার্চ থেকে বন্ধ হওয়া ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ জুনের শুরুর করার পরিকল্পনা করছে লীগ কর্তৃপক্ষ। আর এই বিষয় নিয়ে এক আলোচনায় বসতে যাচ্ছে লীগের ক্লাবগুলো। বৈঠকে লীগ শুরুর রায় আসলে ১৮ মে থেকে অনুশীলনে নামতে হবে লিভারপুল-ম্যান ইউ,সিটি, চেলসি সহ ক্লাবগুলোকে।

এদিকে এমন পরিস্থিতিতে প্রিমিয়ার লীগ খেলা নিয়ে আশংকা প্রকাশ করলেন ম্যানচেষ্টার সিটির আর্জেন্টাইন তারকা সার্জিও আগুয়েরো।সিটি ফরোয়ার্ড বলেছেন,বেশিরভাগ খেলোয়াড়ই নাকি ভয় পাচ্ছেন। তারা এই সংকটে খেলতে রাজি না।

স্প্যানিস টিভি চিরিনগুনার সাথে কথা বলার সময় আগুয়েরো বলেন, বেশিরভাগ খেলোয়াড় ভয় পান কারণ তাদের পরিবার রয়েছে, তাদের সন্তান আছে, তাদের বাচ্চা আছে, বাবা-মা আছে।

তিনি নিজেও মহামারি প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস কে ভয় পাচ্ছেন জানিয়ে বলেন, এটি আমাকে ভয় দেখায় তবে আমি আমার বান্ধবীর সাথে এখানে আছি। এখন বলা হচ্ছে ভাইরাসটি কোনো উপসর্গ ছাড়া মানুষের শরীরে আছে তাই অনেকের শরীরে থাকলে আমরা জানি না। এতে করে সংক্রমিতের শংকা থাকে। এজন্য আমি বাড়িতেই থেকেছি। আপনি সংক্রামিত হতে পারেন এবং এ সম্পর্কে আপনি কিছুই জানেন না।

প্রিমিয়ার লিগ ২০১৯-২০ মৌসুম শেষ করতে যাচ্ছে এবং ৮ জুনের মধ্যে কীভাবে মৌসুম শুরু হতে পারে সে সম্পর্কে শুক্রবার এক বৈঠকে প্রজেক্ট রিস্টার্ট প্রস্তাবনা পাওয়ার কথা রয়েছে। ব্রিটিশ সরকার আগামী বৃহস্পতিবার লকডাউন বিধিনিষেধ পর্যালোচনা করার কথা রয়েছে এবং ফুটবলাররা অনুশীলন শুরু করতে পারে।

এর আগে সাবেক ম্যান ইউনাইটেড তারকা গ্যারি নেভিল প্রিমিয়ার লীগ চালু না করার আহবান জানিয়ে বলেন, আরো কত মানুষ মরতে হবে।

এদিকে কোনো একদিন আবারও সাবেক ক্লাব টটেনহ্যামের ডাগ আউটে আসার স্বপ্ন দেখেন মাউরোসিও পচেত্তিনো। এই আর্জেন্টাইন কোচ, যেদিন থেকে আমি ক্লাবটি ছেড়েছি, সেদিন থেকেই আমার স্বপ্ন একদিন ফিরে আসার এবং আমরা যে কাজটি শেষ করি নি তা শেষ করার চেষ্টা করা। আমরা প্রিমিয়ার লিগ এবং চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের খুব কাছে ছিলাম।

করোনাকে ভয় পায় খেলোয়াড়রা :আগুয়েরো
ছবি : গোল ডটকম

স্কাই স্পোর্টস এই প্রতিবেদনে বলা হয়, টটেনহামের হয়ে শিরোপা জেতার অর্থ অনুভব করতে চাই।

করোনা ভাইরাসের কারণে বন্ধ ফুটবল। কবে মাঠে ফিরবে কোটি মানুষের ভালোবাসার ফুটবল সেটা অজানা। তবে এই সংকটে ক্লাবগুলো সম্ভাব্য আগামী মৌসুমের জন্য দল তৈরি ব্যস্ত। এই যেমন স্প্যানিস ক্লাব বার্সেলোনা।হন্য হয়ে একজন স্ট্রাইকার খুজছে মেসির দল। ৩৩ বয়সে পা রাখা লুইস সুয়ারেজের আদর্শ বিকল্প চায় ক্লাবটি। তাই তাদের প্রথম পছন্দ ইন্টার মিলান স্ট্রাইকার লাউটারো মার্টিনেজ। এই আর্জেন্টাইনকে কিনতে মরিয়া বার্সা। লিওনেল মেসির সাথে জাতীয় দলে দারুণ বোঝাপাড়ার মার্টিনেজের। এর মধ্যে ১৭ ম্যাচে করে খেলেছেন ৯ গোল। গুঞ্জন আছে মেসিও তাই মার্টিনেজকে বার্সায় চান। লুইস সুয়ারেজও তার রিপ্লেসমেন্ট হিসেবে বলেছেন এই আর্জেন্টাইনের কথা।

করোনাকে ভয় পায় খেলোয়াড়রা :আগুয়েরো
ছবি : গোল ডটকম

এবার বার্সেলোনার কোচ কিকে সেতিয়েন কিছুটা ইঙ্গিত দিলেন মার্টিনেজকে নূ-ক্যাম্পে আনার। বার্সা কোচ মুগ্ধতা প্রকাশ করে বললেন, লাউটারো মার্টিনেজ একজন দুর্দান্ত ফুটবলার। সব ভাল খেলোয়াড়ই বার্সেলোনার আগ্রহ আকর্ষণ করতে পারে।

মেসির সাথে মার্টিনেজের জুটি গড়ার প্রসঙ্গে কিকে সেতিয়েন বলেন, মেসির সাথে খেলতে পারার বিষয়টি একটি বিশাল উৎসাহের প্রতিনিধিত্ব করে। মেসির সাথে কে খেলতে চায় না?

গুঞ্জন ছিল প্রকোপভাবে বার্সেলোনায় লিওনেল মেসিদের সাথে আবারও যোগ দিতে যাচ্ছেন পিএসজি তারকা নেইমার। বার্সা বোর্ড এই গ্রীষ্মে বড় অংক খরচ করে ব্রাজিলিয়ান আনতে চায় এমন প্রশ্নের উত্তরে কিকে সেতিয়েন বলেন, তার জন্য ২২২ মিলিয়ন? না। আমি মনে করি না যে এমন কেউ ব্যয় করতে পারে তার জন্য।

জ্যাডন সাঞ্চকে স্পেশাল ট্যালেন্ট বলে গুঞ্জন আরেকটা বাড়িয়ে দিলেন আলেক্সান্ডার আর্নল্ড। এমনিতেই গুঞ্জন আছে লিভারপুলে নাকি দিল বেড়াতে চায় বরুসিয়া ডটমন্ডুর ইংলিশ তারকা জ্যাডন সাঞ্চকে। অলরেড কোচ ইয়ুগ্লেন ক্লপ নিজের সাবেক ক্লাব থেকে এই তারকাকে কিনতে খুবই বদ্ধপরিকর এমন গুঞ্জন আছে। এই নিয়ে সংবাদমাধ্যমের সাথে কথা বলেছেন লিভারপুলের রাইটব্যাক ট্রেন্ট আলেক্সান্ডার আর্নল্ড। লিভারপুল তারকা বলেন, সে যদি আমাদের কাছে আসেন তবে সে আমাদের দলকে আরও উন্নত করতে চাইবে।

আর আমি তাঁর আসার চেয়ে বেশি খুশি কারণ আমি তার সাথে ইংল্যান্ডে খেলেছি এবং তিনি একটি বিশেষ, বিশেষ, বিশেষ, বিশেষ প্রতিভা।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close