আন্তর্জাতিক

জুনে পর্যটকদের জন্য ভিসা খুলছে ইতালি

করোনা ভাইরাসের প্রকোপে ইউরোপ জুড়ে মৃত্যু ও সংক্রমণ কমছে। পরিস্থিতি অনেকটা নিয়ন্ত্রণে আসায় ধীরে ধীরে লকডাউন শিথিল হচ্ছে দেশগুলোতে। ভ্রমন নিষেধাজ্ঞা তুলে ভিসা খুলছে ইতালি। ওদিকে যুক্তরাষ্ট্রে অব্যাহত মৃত্যুর মিছিল।

আগামী জুনের ৩ তারিখ থেকে কোনো বাধ্য বাধকতা ছাড়াই পর্যটকদের ভিসা দিবে করোনা ভাইরাসে তৃতীয় সর্বোচ্চ মৃত্যু দেখা ইতালি। এদিকে ৯ মার্চের পর কোভিড নাইন্টিনে সর্বনিম্ন মৃত্যু হয়েছে দেশটিতে। গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে মারা গেছেন ১৫৩ জন, মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩১ হাজার ৭৬৩ জনে। স্প্যানিস সরকারও কিছু বিমানবন্দর ও কয়েকটি দ্বীপ খুলে দিচ্ছে জানিয়েছেন স্পেনের পরিবহন মন্ত্রী হোসে লুইস আবালস। যদিও এএফপির খবরে বলা হয়েছে স্প্যানিস প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজ বলেছেন, জরুরি অবস্থা আরো এক মাস বাড়তে পারে। স্পেনে করোনা ভাইরাসে গত ২৪ ঘন্টায় মারা গেছেন ১০৪ জন, এই নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা সাড়ে ২৭ হাজার।

মহামারী নভেল করোনা ভাইরাসে মৃতের হার কমেছে ইউরোপের আরেক দেশ ফ্রান্সে। দেশটির স্বাস্থ্য সংস্থা জানায়, গত ২৪ ঘন্টায় মারা মাত্র ৯৬ জন, মোট এই সংখ্যা ২৭ হাজার ৬২৫ জন। আল-জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, ফ্রান্সে কোভিড নাইন্টিনে ১৭ হাজার মানুষ মারা গেছেন হাসপাতালে আর ১০ হাজার মানুষ মারা গেছেন নার্সিং হোম গুলোতে।

ক্রমেই প্রাণঘাতি ভাইরাসের সংক্রমণ কমে আসছে মহামারী মোকাবেলায় ইউরোপের সবচেয়ে সফল দেশ জার্মানি। কঠোর স্বাস্থ্য বিধি মেনে ইউরোপের টপ লীগ গুলোর মধ্যে প্রথম মাঠে ফুটবল গড়িয়েছে দেশটি। গত ২৪ ঘন্টায় মারা গেছেন মাত্র ২৬ জন, মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৮ হাজার।

নভেল করোনা ভাইরাসে ইউরোপে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হওয়া ব্রিটেনে আগামী জুনে স্কুল খোলার পরিকল্পনা চলছে। দেশটির শিক্ষা মন্ত্রী গ্যাভিন উইলিয়ামসন জানিয়েছেন, ক্রমশ নতুন আক্রান্তের সংখ্যা হ্রাস পাওয়া ১ জুন থেকে স্কুল ও শিশু কেয়ার গুলো খোলার সবুজ সংকেত পাওয়া যাচ্ছে। এক্ষেত্রে সংক্রমণের ঝুঁকি কমাতে বেশ কয়েকটি প্রদক্ষেপ নেওয়া হবে যেমন, ক্লাস ছোট করা, শিশুদের ছোট ছোট গ্রুপে রাখা সহ কঠোর স্বাস্থ্য বিধি।

এদিকে সিএএনের খবরে বলা হয়েছে, লন্ডনে লকডাউন বিরোধী আন্দোলন করায় কমপক্ষে ১৩ জনকে বিক্ষোভকারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সরকারের জরুরী করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির বিরুদ্ধে কয়েক ডজন মানুষ হাইড পার্কের সামনে বিক্ষোভ করে। ব্রিটেনে গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে মারা গেছেন ৪৬৮ জন, এই নিয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩৪ হাজার ২৬৬ জনে। নতুন করে ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হয়েছেন সাড়ে ৩ হাজার, মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৪০ হাজার ছাড়িয়েছে।

মহামারী নভেল করোনা ভাইরাসে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থা কোণঠাসা। বাড়ছে বেকারত্বের হার, জরিপ অনুযায়ী সাড়ে ৩ কোটির মতো মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছেন বিশ্ব অর্থনীতির সবচেয়ে মজবুত দেশটিতে। এই পরিস্থিতিতে শুক্রবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ঘোষণা দিয়েছেন করোনার ভ্যাকসিন আসুক বা না আসুক যুক্তরাষ্ট্রকে স্বাভাবিক পরিস্থিতিতে আসতে হবে। আগামী বছর যুক্তরাষ্ট্রের জন্যে অভূতপূর্ব বছর অপেক্ষা করছে বলেন ট্রাম্প৷

যদিও প্রতিদিনই যুক্তরাষ্ট্রের পরিস্থিতি খারাপ হতেই চলছে। ইউএস সেন্ট্রাল ফর ডিজেস অ্যান্ড প্রিভেসন এর পরিচালক রবার্ট রেডফিল্ড আশংকা প্রকাশ করে বলেছেন, আগামী কয়েক সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যুর মিছিল বাড়তে পারে। তিনি তার টুইটারে এক টুইটে বলেন, চলমান বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসে যুক্তরাষ্ট্রে ১ জুনের মধ্যেই মৃতের সংখ্যা ১ লাখ ছাড়িয়ে যাবে।

গত ২৪ ঘন্টায় এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু দেখা যুক্তরাষ্ট্রে মারা গেছেন ১ হাজার ২১৮ জন। যা অন্যান্য দিনের তুলনায় কিছুটা কম। নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২৩ হাজার মানুষ, এই নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৫ লাখ ছাড়িয়েছে। মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৯০ হাজার।

রাজ্যগুলোতে কমছে নতুন সংক্রমনের হার। নিউজার্সির গর্ভনর ফিল মারফি বলেছেন, তার রাজ্যে গত সপ্তাহ থেকে হাসপাতালে নতুন ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৫৫ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে । আর নিউইয়র্কে গর্ভনর অ্যান্ডু কুমো বলেছেন, আমরা নিশ্চিত করতে চাই আর নরকে ফিরতে চাই না। নতুন করে আক্রান্ত হচ্ছেন যারা দোকানে, ব্যায়াম করছেব তাদের মাধ্যমে বলে জানান। কুমো তার রাজ্যে ৬১ বিলিয়ন ফেডারেল সাহায্য দরকার তার রাজ্যে বলে জানান।

আশংকাজনক ভাবে করোনা পরিস্থিতি নাজুক হচ্ছে রাশিয়ায়। দুই সপ্তাহ থেকে প্রতিদিন আক্রান্ত হচ্ছেন ১০ হাজারের মতো মানুষ। গত ২৪ মারা গেছেন ১১৯ জন, মোট মৃত্যু আড়াই হাজার ছাড়িয়েছে। আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৭২ হাজার।

লাফিয়ে লাফিয়ে করোনা ভাইরাসে মৃত্যু ও সংক্রমণ বাড়ছে লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে। এক মাসের মধ্যে প্রেসিডেন্টে বলোসনারে সাথে বিবাদে জড়িয়ে পদত্যাগ করেছেন দুইজন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। প্রাণঘাতি ভাইরাসে নতুন করে ব্রাজিলে মারা গেছেন ৮১৬ জন। এসময় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১৪ হাজার মানুষ, মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৩৩ হাজার। ছাড়িয়ে গেছে ইতালিকে। আর মৃতের সংখ্যা সাড়ে ১৫ হাজার।

ওয়ার্ল্ডোমিটার এর তথ্য অনুযায়ী গত বছর ডিসেম্বরে চীনের উহানে ছড়িয়ে পড়া মহামারী ভাইরাস কোভিড নাইন্টিন এখন পর্যন্ত মারা গেছেন ৩ লাখ ১৩ হাজার । ভয়াবহ ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হয়েছেন ৪৭ লাখ ৩৬ হাজার মানুষ। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৮ লাখের বেশি মানুষ।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close